• সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৫:৪৩ অপরাহ্ন

অপরাধীদের চেহারা পাল্টে দিত যে হাসপাতালগুলো

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : বুধবার, ১০ জুলাই, ২০২৪

ফিলিপাইনে পলাতক আসামিদের চেহারা বদলে দেয় এমন একাধিক হাসপাতালের সন্ধান পাওয়া গেছে। মূলত গ্রেফতার এড়াতে সাহায্য করার জন্য পলাতক আসামি এবং স্ক্যাম সেন্টারের কর্মীদের প্লাস্টিক সার্জারি পরিষেবা দিচ্ছে হাসপাতালগুলো।

পুলিশের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, মে মাসে ম্যানিলার দক্ষিণ শহরতলীতে পুলিশ অভিযান চালানোর পর এই ধরনের দুটি অবৈধ হাসপাতালের সন্ধান পাওয়া যায়। এগুলো ‘আগামী সপ্তাহে’ বন্ধ করা হতে পারে।

দুই মাস আগে পাসে সিটির একটি হাসপাতাল থেকে হেয়ার ট্রান্সপ্লান্ট টুল, ডেন্টাল ইমপ্লান্ট এবং ত্বক সাদা করার আইভি ড্রিপ জব্দ করা হয়।

প্রেসিডেন্সিয়াল অ্যান্টি অর্গানাইজড ক্রাইম কমিশনের (পিএওসিসি) মুখপাত্র উইনস্টন জন ক্যাসিও বলেছেন, “আপনি এগুলো দিয়ে একজন ব্যক্তিকে সম্পূর্ণ নতুন রূপ দিতে পারবেন।”

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নজরদারির অধীনে থাকা দুটি অবৈধ হাসপাতাল পাসে-এর অন্য হাসপাতালগুলোর তুলনায় চারগুণ বড় বলে মনে করা হচ্ছে। একটি হাসপাতাল থেকে তিনজন চিকিৎসকে গ্রেফতার করা হয়েছে, যাদের দু’জন ভিয়েতনামের এবং একজন চীনের নাগরিক। এছাড়া একজন চীনা ফার্মাসিস্ট এবং একজন ভিয়েতনামী নার্সকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ একটি হেমোডায়ালাইসিস মেশিনও খুঁজে পেয়েছে হাসপাতালে।

ক্যাসিও বলেন, “এগুলো বাইরে থেকে নিয়মিত ক্লিনিকের মতো দেখায়, কিন্তু একবার আপনি প্রবেশ করলে, তাদের প্রযুক্তির ধরন দেখলে আপনি হতবাক হয়ে যাবেন। এই হাসপাতালগুলো গ্রাহকের সঠিক পরিচয়পত্র চায় না.. আপনি পলাতক হতে পারেন, অথবা আপনি ফিলিপাইনে একজন অবৈধ বাসিন্দাও হতে পারেন।”
সূত্র: বিবিসি


আপনার মতামত লিখুন :
এ জাতীয় আরও খবর