• সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ১১:১২ পূর্বাহ্ন

অর্থনেতিক সংকটকালে এই বাজেট গণমুখী, বাস্তবসম্মত: ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : শনিবার, ৮ জুন, ২০২৪

অর্থনেতিক সংকটকালে এই বাজেট গণমুখী, বাস্তবসম্মত বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন-গত ৬ জুন জাতীয় সংসদে শেখ হাসিনা সরকারের অর্থমন্ত্রী ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করেছেন। অর্থনেতিক সংকটকালে এই বাজেট গণমুখী, বাস্তবসম্মত। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ৪০ শতাংশ লোককে দারিদ্র্যসীমার নিচে রেখে গেছে। শেখ হাসিনা সরকার ১৮ শতাংশে আর অতিদরিদ্র ৬ শতাংশে নামিয়ে এনেছে। বাংলাদেশে এখন শুধু ডালে ভাতে নয়, পুষ্টি উন্নয়নে স্বয়ংসম্পূর্ণ।

শনিবার (৮ জুন) দুপুরে গুলিস্তান ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বাজেট প্রতিক্রিয়া জানাতে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তালিকা চান তিনি।

এ সময় আওয়ামী লীগের মধ্যে থাকা দুর্নীতিবাজদের তালিকা পেলে তা দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) দেওয়া হবে বলে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন-আওয়ামী লীগের অনেক নেতার বিরুদ্ধে দুর্নীতির নানা অভিযোগ গণমাধ্যমে আসছে, তাদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেবেন এমন প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের দুর্নীতিবাজ কারা তাদের তালিকা দিন। আমরা দুদককে বলব তদন্ত করতে। যাদেরকে দুর্নীতিবাজ ভাবছেন, আপনারা তালিকা প্রস্তুত করুন।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমাদের উপদেষ্টাদের মধ্যে অর্থনীতিবিদ অনেকেই আছে, তারা সবাই একবাক্যে সাহসী বাজেট বলেছেন। একটা চ্যালেঞ্জ আছে সেটা হলো বাস্তবায়ন। বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ আমরাও স্বীকার করি। এই চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করার জন্য সরকার ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে। আমরা অনেক চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করেছি, ইনশাআল্লাহ আমরা এই চ্যালেঞ্জও অতিক্রম করতে পারবো। দ্রব্যমূল্য, ডলার সংকট, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আনা, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি করা, পারিবারিক কার্ডের মাধ্যমে এখন দেশের সংকট মোকাবেলা করার স্কিম রয়েছে নিম্ন আয়ের মানুষকে সাহায্য করার জন্য এইসব পদক্ষেপ সরকার নিচ্ছে।

বিএনপির সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নিজেরাই হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান লন্ডনে বসে দণ্ডিত এই আসামি আরাম আয়েশে দিনযাপন করছে। এই হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পদের হিসাব মির্জা ফখরুল সাহেবকে দিতে হবে।

এখন যে আলোচনা হচ্ছে, নানা সাজেশনও আসছে অর্থনীতিবিদদের পক্ষ থেকে, সেক্ষেত্রে এখন কি সেগুলো বাজেটে বা বিয়োজন হওয়ার কোনো সুযোগ আছে এমন প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, ২৯ বা ৩০ তারিখ বাজেট পাস হবে। তার আগে সংশোধন বা সংযোজনের সুযোগ সবসময় ছিল, এবারও হবে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য কামরুল ইসলাম, ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খানসহ অনেকই।


আপনার মতামত লিখুন :
এ জাতীয় আরও খবর