• সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৯:৩১ পূর্বাহ্ন

কিরগিজস্তানে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা, আতঙ্কে বাংলাদেশিরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪

কিরগিজস্তানে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ওপর স্থানীয়দের হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে চরম আতঙ্কে সময় পার করছেন বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানসহ দেশটিতে থাকা বিদেশি শিক্ষার্থীরা। তারা দেশটির বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল কলেজে পড়াশোনা করছেন।

গত সোমবার (১৩ মে) মধ্যএশিয়ার দেশ কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেকের বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মিশরের ছাত্রদের সঙ্গে স্থানীয়দের দ্বন্দ্ব হয়। কয়েকদিন পর শুক্রবার (১৭ মে) রাতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস আবারও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। ক্যাম্পাসে ঢুকে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায় স্থানীয়রা। এরপরই অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়েও ছড়িয়ে পড়ে সংঘাত।

ইতোমধ্যে ভারতীয় দূতাবাস দেশটিতে থাকা তাদের নাগরিকদের ঘরের ভিতরে থাকার পরামর্শ দিয়েছে। পাকিস্তানও তাদের নাগরিকদের একই পরামর্শ দিয়েছে। দেশটিতে নিযুক্ত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত হাসান জাইঘাম কিরগিজ উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইমানগাজিভ আলমাজের সঙ্গে দেখা করেছেন। তিনি দেশটিতে থাকা পাকিস্তানি নাগরিকদের নিরাপত্তার বিষয়টি তুলে ধরেছেন।

দেশটির স্থানীয় মিডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, একটি হোস্টেলে গত ১৩ মে বিদেশি শিক্ষার্থী ও স্থানীয়দের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। মিসর থেকে আসা মেডিকেল শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কিরগিজ শিক্ষার্থীদের মারামারির ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরেই পরিস্থিতি উত্তাল হয়।

এ নিয়ে পরবর্তীটে দেশটির বহু সংখ্যক বিক্ষোভকারী জড়ো হয়। এর মধ্যে অনেকে রাস্তা দখল করে এবং ভবনে ভাঙচুর চালিয়েছে। দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করেছে। সেইসঙ্গে মোতায়েন করা হয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, বিক্ষোভকারী বিভিন্ন দরজার ভেঙে ফেলছেন এবং বিদেশি শিক্ষার্থীদের পেটাচ্ছে।

ফার্স্ট পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৭-১৮ মে রাতে বিশকেক উত্তাল ছিল। বিক্ষোভকারীরা বিদেশি শিক্ষার্থী ও অভিবাসীদের লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনায় অন্তত ২৮ জন আহত হয়েছে, যার মধ্যে তিনজন বিদেশি শিক্ষার্থী আছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, একদল দুর্বৃত্ত ভারত ও পাকিস্তানের মেডিকেল শিক্ষার্থীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। বিশেষ করে যারা দেশটির রাজধানী বিশকেকের হোস্টেলে থাকেন এমন আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের লক্ষ্যবস্তু করা হয়।

ভারতীয় গণমাধ্যম নিউজ নাইনের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, কিরগিজস্তানে দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত চারজন পাকিস্তানি। যদিও বিষয়টি অস্বীকার করেছে কিরগিজস্তানে পাকিস্তান দূতাবাস।

প্রাথমিকভাবে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন বলে জানানো হয়। তবে হামলার ঘটনায় দূতাবাসের কাছে বার বার সাহায্য চাওয়া হলেও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ পাকিস্তানি শিক্ষার্থীদের।

দেশটিতে থাকা বাংলাদেশি শিক্ষার্থীও চরম আতঙ্কে আছেন বলে জানিয়েছেন। দেশটিতে অধ্যরনরত সায়মা কবির সংবাদসংস্থা ইউএনবিকে বলেন, আমরা পাঁচজন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী এই মুহূর্তে একটি অ্যাপার্টমেন্টে আছি। কিছু লোক আমাদের অ্যাপার্টমেন্টের সামনে জড়ো হয়েছে। প্লিজ আমাদের সাহায্য করুন।

তবে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বিশকেকের পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে।

বিদেশি শিক্ষার্থীদের পড়াশুনার জন্য পছন্দের অন্যতম একটি দেশ হচ্ছে কিরগিস্তান। বিশেষ করে মেডিকেলের জন্য বিদেশি শিক্ষার্থীদের পছন্দের দেশ এটি।

দেশটিতে সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজ মিলিয়ে প্রায় ১২০০ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী রয়েছে। খবরে বলা হয়েছে, সরকারি মেডিকেলের শিক্ষার্থীরা নিরাপদে থাকলেও বিপদে আছেন বেসরকারি মেডিকেলের প্রায় ৯ শতাধিক শিক্ষার্থী। তারা একরকম গৃহবন্দি হয়ে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন। অনাহারে দিন কাটাতে হচ্ছে তাদের।


আপনার মতামত লিখুন :
এ জাতীয় আরও খবর