• মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৪:৫৮ পূর্বাহ্ন

চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের সঙ্গে বিকাশের চুক্তি স্বাক্ষর

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : মঙ্গলবার, ৮ আগস্ট, ২০২৩

বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের আওতায় আখ বিক্রির পেমেন্ট বিকাশ অ্যাকাউন্টে পৌঁছে দিতে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে চুক্তি সই করেছে বিকাশ। এতে চাষিরা এখন থেকে সঠিক সময়ে স্বচ্ছতার সঙ্গে পেমেন্ট পেয়ে যাবেন।

সম্প্রতি রাজধানীর একটি হোটেলে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তি সই করেন বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের সচিব চৌধুরী রুহুল আমিন কায়সার ও বিকাশের ‍চিফ কমার্শিয়াল অফিসার আলী আহম্মেদ।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব জাকিয়া সুলতানা, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের চেয়ারম্যান মো. আরিফুর রহমান অপু, বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীরসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এই চুক্তির আওতায়, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের অধীন প্রায় ১ লাখ চাষির কাছ থেকে আখ সংগ্রহের পর তাদের পেমেন্ট দ্রুত পৌঁছে যাবে বিকাশে। ফলে, চাষিরা উৎপাদিত আখের যথাযথ মূল্য পাবেন তাদের হাতের মুঠোয় থাকা বিকাশ অ্যাকাউন্টে এবং কোনো চার্জ ছাড়াই তা ক্যাশ আউট করতে পারবেন দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা ৩ লাখ ৩০ হাজার এজেন্ট পয়েন্ট থেকে। করপোরেশন ও বিকাশ যৌথভাবে ক্যাশ আউট চার্জ বহন করবে। এতে সার্বিক আখ সংগ্রহ এবং তার মূল্য পরিশোধে দ্রুততা, স্বচ্ছতা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে এবং চাষিদের সঙ্গে চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে।

বিকাশের গ্রহণযোগ্যতাকে প্রশংসা করে শিল্প সচিব জাকিয়া সুলতানা বলেন, ‘দীর্ঘদিন কৃষকদের একটা দাবি ছিল যে আখের দামটা যাতে এমএফএসের মাধ্যমে দেওয়া, যাতে তারা সহজেই টাকাটা পান। এই চুক্তির মাধ্যমে আখ চাষিদের স্বচ্ছতার সঙ্গে টাকা পৌঁছে দিতে পারব।’

বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর বলেন, ‘বিকাশের মাধ্যমে যে টাকাটা পাঠানো হবে তার সম্পূর্ণ স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা হবে।’


আপনার মতামত লিখুন :
এ জাতীয় আরও খবর