ব্যাংক এশিয়ার এমডির পদত্যাগ, কারণ কি

ব্যাংক এশিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আরিফ বিল্লাহ আদিল চৌধুরী হঠাৎ পদত্যাগ করেছেন। এ নিয়ে ব্যাংক পাড়ায় নানা ধরণের গুঞ্জন শুরু হয়। ঋণ অনিয়মের কারণে পদ থেকে সরে গেছেন এমনটা মনে করা হলেও সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ব্যক্তিগত কারণেই পদত্যাগ করেছেন আরিফ বিল্লাহ আদিল চৌধুরী। গত সপ্তাহের শেষ দিকে তিনি পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

জানা গেছে, পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার পর থেকেই কর্মস্থলে যাচ্ছেন না আদিল চৌধুরী। যদিও তাঁর দেওয়া পদত্যাগপত্র এখনো ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে গৃহীত হয়নি।

গত বছরের নভেম্বরে ব্যাংক এশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও এমডি পদে যোগ দেন আদিল চৌধুরী। এর আগে ২০২০ সালের আগস্টে উপব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) হিসেবে ব্যাংক এশিয়ায় যোগ দিয়েছিলেন তিনি। এরপর তিনি অতিরিক্ত এমডি হিসেবে পদোন্নতি পান।

ব্যাংকটির পর্ষদের একটি সূত্র জানায়, গত বুধবার আদিল চৌধুরী পদত্যাগপত্র জমা দেন।

সূত্রটি আরও জানায়, আরিফ বিল্লাহ আদিল চৌধুরীর পরিবারের সদস্যরা বিদেশে বসবাস করেন। এমডি হিসেবে যোগদানের পর তার দায়িত্ব আগের চেয়ে বেড়ে যায়। এ কারণে পরিবারকে তিনি বেশি সময় দিতে পারতেন না। ফলে ব্যাংকের দায়িত্ব পালনে তিনি সবসময় মানসিকভাবে অস্বস্তিতে থাকতেন। এই মানসিক চাপ তিনি সহ্য করতে না পেরে এক মাস আগে থেকে তিনি চাকরি ছেড়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেন। শেষ পর্যন্ত গত সপ্তাহে তিনি পদত্যাগ পত্র জমা দিয়েছেন।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে আদিল চৌধুরীর মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

জানা গেছে, আরিফ বিল্লাহ আদিল চৌধুরীর পরিবার কানাডায় বসবাস করে।

ব্যাংকটির পর্ষদের একটি সূত্র জানায়, গত বুধবার আদিল চৌধুরী পদত্যাগপত্র জমা দেন।এরপর বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের সভায় অংশ নেননি। সেদিনই ব্যাংকটির অতিরিক্ত এমডি শফিউজ্জামানকে এমডি পদে চলতি দায়িত্ব দেওয়া হয়।

কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো এক মেইলে ব্যাংক এশিয়া কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আগামী ২১ অক্টোবর পর্যন্ত ছুটিতে থাকবেন আদিল চৌধুরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *