যুক্তরাষ্ট্রে ২১ গ্যাস ফিলিং স্টেশনের মালিক শহিদুজ্জামান

যশোরে ‘সফল যারা, কেমন তারা’ অনুষ্ঠানে সততা ও কর্তব্যনিষ্ঠার গল্প শোনালেন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাকিম মোহাম্মদ শহিদুজ্জামান।

প্রবাসে গিয়ে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে পরিশ্রম করে আজ তিনি ২১টি গ্যাস ফিলিং স্টেশনের স্বত্বাধিকারী।

যশোরের আইডিয়া যুব উন্নয়ন কেন্দ্রের নিয়মিত এ আয়োজনে এবার প্রধান বক্তা ছিলেন আমেরিকার এই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী।

সফল ব্যবসায়ী হয়ে ওঠার কাহিনী জানাতে গিয়ে হাকিম মোহাম্মদ শহিদুজ্জামান বলেন, ‘আমেরিকায় আমার এই যাত্রা সহজ ছিলো না। ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশ ছেড়ে যখন বিদেশ পাড়ি দিই, ঠিকমতো ইংরেজিও বলতে পারতাম না। ছোট্ট একটা কোম্পানিতে অনুশীলন চর্চার জন্য যোগদান করার পর শুধু শিখতেই চেয়েছিলাম। বাধা এসেছে কিন্তু সততা দিয়েই লেগেছিলাম। তাই হয়তো আজ আপনাদের কাছে আমি সফল। আমিও খুশি, আলহামদুলিল্লাহ। চেষ্টা সততার সঙ্গে শ্রম দিতে থাকলে আল্লাহ ব্যর্থ করেন না। ’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইডিয়া সমাজকল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সহকারী অধ্যাপক হামিদুল হক শাহীন। তিনি বলেন, ‘আমাদের শিক্ষার্থীরা মূলত সফল মানুষের সান্নিধ্য পায় না বলেই তারা ব্যর্থতার পরাবৃত্তে ঘুরপাক খায়। শিক্ষার্থীদের সফল মানুষের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়ে অনুপ্রাণিত করার লক্ষ্যেই আইডিয়া আয়োজন ‘সফল যারা, কেমন তারা’। এই অনুষ্ঠানের অতিথি প্রবাসী হাকিম মোহাম্মদ শহিদুজ্জামান। শুধু সততা দিয়েই তিনি এখন ভার্জিনিয়ার একজন সফল ব্যবসায়ী। তার এখন ২১টি গ্যাস ফিলিং স্টেশন রয়েছে ভার্জিনিয়াতে।’

অনুষ্ঠানের শুরুতেই হামিদুল হক প্রধান বক্তা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাকিম মোহাম্মদ শহিদুজ্জামানের হাতে শুভেচ্ছা স্মারক, নকশিকাঁথা ও পিঠা পার্ক-এর ডালা দিয়ে বরণ করে নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 + 20 =