জাপানের মধ্যাঞ্চলে শক্তিশালী টাইফুনের আঘাতে ২ জনের মৃত্যু

জাপানের মধ্যাঞ্চলে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় টাইফুনের আঘাতে দুজন মারা গেছেন। স্থানীয় সময় রোববার টাইফুনের প্রভাবে সেখানে আকস্মিক বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে এবং বেশ কয়েক জায়গায় ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছে। খবর এএফপির।

এছাড়া ঘূর্ণিঝড় কবলিত এলাকায় বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন কয়েক হাজার মানুষ। বিশুদ্ধ পানির সংকটও দেখা দিয়েছে।

আঞ্চলিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, শিজুকার কাকেগাওয়া শহরে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রতিবেশী ফুকুরোই শহরে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে শিজুকার কাওয়ানেহোনচো শহরে এখনও একজন নিখোঁজ রয়েছেন। এছাড়া আরও তিনজন সামান্য আহত হয়েছেন। জাপানের আবহাওয়া অফিসের তথ্য অনুযায়ী, টাইফুন তালাসের প্রভাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪০ সেন্টিমিটারের বেশি (১৬ ইঞ্চি) বৃষ্টিপাত হয়েছে।

তীব্র ঝোড়ো বাতাস ও ভারি বৃষ্টির কারণে শিজোকার পাহাড়ি এলাকায় ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছে। বেশ কিছু বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে গেছে। প্রায় এক লাখ ২০ হাজার বাড়ি-ঘর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছে।

এছাড়া প্রায় ৫৫ হাজার বাড়ি-ঘরে পানির সংকট দেখা দিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহে কাজ করছেন পৌরসভার কর্মকর্তারা। কয়েকদিন আগেই জাপানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে টাইফুন নানমাদোলের আঘাতে চারজনের মৃত্যু হয়। এছাড়া আহত হয় আরও ১৪৭ জন।

উল্লেখ্য, টাইফুন নানমাদোল, জাপানে বছরের পর বছর আঘাত হানা সবচেয়ে বড় ঘূর্ণিঝড়গুলোর মধ্যে একটি। শক্তিশালী টাইফুন নানমাদোলের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শহর কিউশুসহ উপকূলীয় বেশ কয়েকটি অঞ্চল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − four =