এলডিপি-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ, এলডিপির মহাসচিব আটক

কুমিল্লায় এলডিপির মহাসচিব ও সাবেক মন্ত্রী ড. রেদেয়ান আহমেদকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে চান্দিনা উপজেলা সদরে ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীদের ওপর গুলি চালানোর অভিযোগে পুলিশ তাকে আটক করেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম তানভীর আহমেদ বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পেরেছি ড. রেদোয়ান আহমেদ কয়েক রাউন্ড গুলি চালিয়েছেন, তাই আমরা তাকে পুলিশ হেফাজতে এনে এ বিষয়ে জানতে চাচ্ছি। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

এদিকে সূত্রে জানা যায়, বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে চান্দিনা উপজেলা সদরে অবস্থিত চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ ডিগ্রি কলেজ মিলনায়তনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে এলডিপি। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দলের মহাসচিব ও সাবেক মন্ত্রী ড. রেদেয়ান আহমেদ। অনুষ্ঠান শুরুর আগেই দুপুরের দিকে ড. রেদোয়ান কলেজ ক্যাম্পাসে প্রবেশ করেন। তিনি ওই কলেজটির প্রতিষ্ঠাতা এবং চান্দিনা আসনের সাবেক এমপি। একই সময়ে স্থানীয় ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ একই স্থানে কর্মী সভার করার ঘোষণা দিলে উভয় গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলডিপির একাধিক নেতা বলেন, ছাত্রলীগ নেতারা ইচ্ছা করেই ঝামলো পাকিয়েছে, তারা রেদোয়ান আহমেদ ও তার গাড়ি লক্ষ্য করে তরমুজ ও ঢিল মারার পাশাপাশি তার ওপর হামলা চালায়।

এদিকে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের দাবি, হঠাৎ রেদোয়ান আহমেদ তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালালে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী জনি ও ছাত্রলীগ কর্মী নাজমুল গুলিবিব্ধ হন। তাদের কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গুলিবিদ্ধরা হলেন ছাত্রলীগ কর্মী জনি আহমেদ (২২) ও কুমিল্লা উত্তর জেলা সেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী নাজমুল হোসেন নাঈম (২৮)।

এইদিন/সংবাদ/রই/রাজনীতি

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

four × four =