৫০০ রুপির নোট ভাঙাতে গিয়ে কোটিপতি বনে গেলেন রংমিস্ত্রি

৫০০ রুপির নোট ভাঙাতে গিয়ে কোটিপতি বনে গেলেন রংমিস্ত্রি

একেই বলে ভাগ্যের খেলা! সকালে লটারি কেটে বিকেলে কোটিপতি হলেন এক রংমিস্ত্রি। এ রকম ঘটনা মাঝেমধ্যে শোনা যায় ঠিকই, কিন্তু সদানন্দনের ক্ষেত্রে কাহিনিটা একটু অন্য রকম।

৫০০ টাকা নিয়ে বাজার করতে বেরিয়েছিলেন ভারতের কেরালার কোট্টায়মের বাসিন্দা সদানন্দন ওলিপারাম্বিল। কিন্তু দোকানি খুচরো না দেওয়ায় মহা বিড়ম্বনায় পড়েন তিনি। বাজারের কাছেই ছিল লটারির একটি দোকান। খুচরা করার জন্য কিছু টাকা দিয়ে লটারি কিনেছিলেন তিনি। তারপর বাকি টাকা নিয়ে ফের বাজার করতে চলে যান।

বিকেল হতেই এলাকায় হইহই পড়ে যায়। কারণ ওই এলাকা থেকেই লটারির প্রথম পুরস্কার জিতেছেন একজন। কিন্তু বিজয়ী কে সেটা তখনো কেউ জানতেন না। সদানন্দনের কানে যখন খবর পৌঁছায় এলাকার একজনের ভাগ্যে প্রথম পুরস্কার জুটেছে, তিনি আর স্থির থাকতে পারেননি। জামার পকেটে রাখা টিকিটটি বের করে সোজা লটারির দোকানে চলে যান।

তখনও সদানন্দন আঁচ করতে পারেননি, যাকে নিয়ে এত হইচই সেই ব্যক্তি তিনি নিজেই। লটারির দোকানে টিকিটের নম্বরটা মেলাতেই আঁতকে ওঠেন সদানন্দন। ঠিক দেখছেন তো! আরও ভালো করে বার কয়েক টিকিটের নম্বর মেলান। দেখেন তাঁর কেনা টিকিটেই প্রথম পুরস্কার হয়েছে। যার মূল্য ১২ কোটি টাকা!

পেশায় রংমিস্ত্রি সদানন্দন যে প্রথম সুযোগেই ভাগ্যবিজেতা হয়েছেন এমনটা নয়। তিনি নিয়মিত লটারির টিকিট কিনতেন। তবে কোনো দিন খুব বেশি টাকা পাননি। কয়েকটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, ১২ কোটি টাকা জিতলেও পুরো টাকাটা হাতে পাবেন না সদানন্দন। আয়কর কেটে প্রায় সাড়ে সাত কোটি টাকা হাতে পাবেন তিনি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

19 + 16 =