এই দিন

শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০   শ্রাবণ ৩১ ১৪২৭   ২৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beta Version
   এই দিন
সর্বশেষ:
করোনা এমনিতেই বাংলাদেশ থেকে চলে যাবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৩৪, শনাক্ত ২৬৪৪ খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর আর নেই বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বার্সাকে ৮–২ গোলে বিধস্ত করে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে বায়ার্ন জাতীয় শোক দিবস আজ যত দিন বেঁচে আছি এতিমদের পাশে আছি : প্রধানমন্ত্রী
৭২

শিক্ষার্থীদের পতিতা বলেছি ভিসি স্যার এ বিষয়ে জানেন: খোরশেদ

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৯ জুলাই ২০২০  

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর সম্মতিতেই শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের চাটুকার, কুলাঙ্গার, হকার ও পতিতা বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী খোরশেদ আলম। সোমবার সন্ধ্যায় তিনি নিজেই মুঠোফোনে এসব কথা অকপটে স্বীকার করেছেন।

মুঠোফোনে খোরশেদ আলম বলেন, আমি যা কিছু করেছি (ফেসবুক স্ট্যাটাসে শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের আপত্তিকর মন্তব্য) অফিসিয়াল প্রসিডিউর মেইনটেইন করেই করেছি। কোন ধরনের অফিসিয়াল প্রসিডিউর তিনি পালন করেন- এমন প্রশ্নের জবাবে খোরশেদ জানান, আমার কলাম, নিউজ লেখালেখি সবকিছু সম্পর্কে ভাইস চ্যান্সেলর স্যার অবগত। আমি তাকে জানিয়ে সবকিছু করেছি।

বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ পেয়েছেন কবে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তিনি জানান, ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা হওয়ার পর ১৯ মার্চ নিয়োগ পেয়েছি।

এর আগে গত শুক্রবার রাতে নবপ্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ চার সাংবাদিকের নাম উল্লেখ করে অসাংবিধানিক ও আপত্তিকর এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এরপরই এ কর্মচারী বিশ্ববিদ্যালয়ের চার সাংবাদিককে নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। এতে শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের “পতিতা, চাটুকার, কুলাঙ্গার, হকার ” বলে উল্লেখ করেছেন।

এদিকে কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে ‘নবপ্রজন্ম শিক্ষক পরিষদের অসাংবিধানিক ও অনৈতিক বিবৃতি এবং শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের নিয়ে ফেসবুকে ‘পতিতা, হকার, চাটুকার, কুলাঙ্গার’ উল্লেখ করে সেই কর্মচারীর দেয়া মানহানীকর মন্তব্যের বিষয়ে ক্যাম্পাসসহ দেশের বিভিন্ন মহলে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নীরব ভূমিকায় রয়েছেন।

সেদিন রাতে নব প্রজন্ম শিক্ষক পরিষদের আহবায়ক সুমাইয়া তাহসিন হামিদা এবং সদস্য সচিব খালিদ হাসান রিয়েল স্বাক্ষরিত একটি বিবৃতি ফেসবুকে শেয়ার করে অভিযোগ করা হয়েছে, সম্প্রতি দুদকের মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন কর্মকর্তাকে বহিষ্কার সংক্রান্ত একটি সংবাদ, বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত চারজন সাংবাদিক (বাংলানিউজ২৪.কমের মাহফুজুল ইসলাম বকুল, যুগান্তরের রাব্বী হাসান সবুজ, মানবজমিন ও ঢাকা টাইমসের ইভান চৌধুরী ও ইত্তেফাকের মোবাশ্বের আহমেদ) তাঁদের পেশাগত প্রধান কার্যালয়ের (কেন্দ্রীয় অফিসের) দৃষ্টি গোচরে আনেননি এবং এ ব্যাপারে তাদের কোন ভ্রুক্ষেপও নেই।

বিবৃতিতে বলা হয়, এই বিষয়টি দায়িত্বরত সাংবাদিকবৃন্দের কাছ থেকে গঠনমূলক কোন প্রতিবেদন পরিলক্ষিত হয়নি। তারা দায়িত্বের অপব্যবহার করছেন তাই উল্লিখিত সাংবাদিকদের সাংবাদিকতা থেকে বিরত রাখার কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে প্রশাসন থেকে ব্যবস্থা গ্রহণের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।

এই প্রেস বিজ্ঞপ্তির সূত্র ধরে সেদিন রাতে বর্তমান উপাচার্যের আমলে করোনাকালীন সময়ে নিয়োগ পাওয়া পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের ব্যক্তিগত সহকারি (পিএ) সাংবাদিক ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে ফেসবুকে ‘পতিতা, হকার, চাটুকার, কুলাঙ্গার’ উল্লেখ করে স্ট্যাটাস দেয়। এতে করে এই কর্মচারী ও নবপ্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে।

এ ঘটনায় পরদিন তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদসহ শিক্ষক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও কর্মচারীসহ প্রশাসনের সকল সংবাদ বয়কট করে ওই কর্মচারীর শাস্তির দাবিতে ভিসিকে স্মারকলিপি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি। পাশাপাশি দেশের ৩০টি সাংবাদিক সংগঠন থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তরের পরিচালক ড. নুর আলম সিদ্দিক বলেন, ‘শিক্ষার্থীদেরকে এভাবে বলা সমীচীন নয়। যদি সেই কর্মচারী এসব বলে থাকেন অবশ্যই প্রশাসনের যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া উচিত।’

ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আতিউর রহমান বলেন, ‘সাংবাদিকদের নিয়ে নবপ্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ ও ওই কর্মচারী এমন মন্তব্য করার অধিকার রাখেন না। এবিষয়ে উপাচার্যের সাথে আমরা কথা বলবো।’

নবপ্রজন্ম শিক্ষক পরিষদের আহ্বায়ক সুমাইয়া তাহসিন হামিদাকে ফোন করা হলে এ প্রতিবেদকের পরিচয় পেয়ে ফোন কেটে দেন।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহকে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

   এই দিন
এই বিভাগের আরো খবর