শুক্রবার   ০৩ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ১৯ ১৪২৬   ০৯ শা'বান ১৪৪১

Beta Version
সর্বশেষ:
করোনা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন ৫ এপ্রিল তথ্য গোপন করে এই মহামারী এড়ানো যাবে না: রিজভী বিশ্বজুড়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ৯ লাখ ছাড়িয়ে, প্রাণ হারিয়েছেন প্রায় ৪৮ হাজার করোনা সর্তকতায় আজ থেকে কঠোর অবস্থানে সেনাবাহিনী ঘর থেকে তুলে নিয়ে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা ঢাকা ছাড়লেন ৩২৭ জাপানি বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস আজ সাধারণ ছুটিতে ব্যাংকে লেনদেনের সময় বাড়ল করোনায় মৃত ব্যক্তির থেকে ভাইরাস ছড়ায় না: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রতি উপজেলা থেকে করোনার অন্তত দুজনের নমুনা সংগ্রহের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর দেশে আরও দুজন করোনা রোগী শনাক্ত ,২৪ ঘণ্টায় দেশে মারা যাননি কেউ: এমআইএস
১১৬

ঘরের যে সকল জিনিসে রয়েছে করোনার ঝুঁকি

প্রকাশিত: ২৫ মার্চ ২০২০  

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা জানিয়েছে, উৎপত্তিস্থল চীন ছাড়াও বিশ্বের মোট ১৯৫টি দেশে মরণঘাতী ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়েছে। তাছাড়া ঝুঁকিতে আছে আরও অনেক দেশ। এতে বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৩ লাখ ৭৯ হাজার ছাড়িয়েছে। যাদের মধ্যে ইতালি, ইরান ও দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকদের সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি। এমন অবস্থায় বিশ্বজুড়ে সতর্কতা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। গবেষণায় দেখা গেছে, এই ভাইরাসটি শক্ত কিছুর ওপর বেশ কয়েক ঘণ্টা বেঁচে থাকতে পারে। অর্থাৎ, আপনার ঘরের প্রতিদিনের ব্যবহার্য জিনিসপত্র, মেঝে ও আসবাবের উপরিতলে অবস্থান করতে পারে এটি। 

ঘরবাড়ি যতটা সম্ভব কম ঝুঁকিপূর্ণ নিশ্চিত করতে যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি) ঘরের উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ স্থানের তালিকা তৈরি করেছে। তারা যেসব স্থান জীবাণুমুক্ত রাখার পরামর্শ দিয়েছেন সেগুলো হলো- 

* কিচেন কাউন্টার টপস
* টেবিল
* দরজার হাতল
* বাথরুমের ফিক্সচার
* টয়লেট
* ফোন
* কি-বোর্ড
* ট্যাবলেট পিসি
* টেবিলের আশপাশে
* যেখানে রক্ত, মল বা ঘাম লেগে থাকতে পারে এমন স্থান

সুরক্ষিত থাকবেন যেভাবে 

সিডিসির পক্ষ থেকে, ঘরের সব জিনিসপত্র নিয়মিত জীবাণুনাশক স্প্রের সাহায্যে পরিষ্কার করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ সময় গ্লাভস পরা ও ঘরের বায়ু চলাচল নিশ্চিত করতেও বলা হয়েছে। 

নিজের কোনো জিনিস পরিবারের অন্যদের সঙ্গে শেয়ার না করাই উচিত হবে। বিশেষ করে বাসন, গ্লাস, কাপ, চশমা, তোয়ালে ও বিছানা ইত্যাদি আলাদা রাখুন। 

করোনা মোকাবিলায় সচেতন হোন। 

   এই দিন